তারিখ : ২৪ জানুয়ারী ২০২২, সোমবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

শ্রীপুরে চেয়ারম্যান পদে দুই নারী নেত্রীর লড়াই

শ্রীপুরে চেয়ারম্যান পদে দুই নারী নেত্রীর লড়াই
[ভালুকা ডট কম : ২৯ ডিসেম্বর]
ইতিপূর্বে কোন নারী এম ইউপি’র নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়নি। এবারই প্রথম একই ইউনিয়নে দুইনারী চেয়াম্যান পদে নেমেছেন ভোটের লড়াইয়ে। দুজনেই প্রধান দু’টি রাজনৈতিক দলের নেত্রী। নির্বাচন হবে এ দুই প্রার্থীর মধ্যে প্রতিদ্বন্ধিতাপূর্ণ। দু’জন নারী নেত্রী চেয়াম্যান পদে প্রতিযোগীতা করছেন গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার রাজাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে।

চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধি প্রার্থীরা হলেন, আওয়ামীলীগ মনোনীত উপজেলা আওয়ামী মহিলালীগের সদস্য মোসা.হাসিনা মমতাজ। তিনি জানান, ২০০৪ সাল থেকে তিনি আ’লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। ধীর্ঘদিন যাবৎ  রাজনীতি করছেন। এবারই তিনি প্রথম নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। দলীয় নেতা কর্মীদের উজ্জিবীত করে এলাকায় ব্যাপক গণসংযোগ করছেন। চালিয়ে যাচ্ছেন প্রচার-প্রচারণা। নির্বাচনে আ’লীগ মনোনীত প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতিক নিয়ে প্রতিদ্বন্দিতা করছেন তিনি।

অপর জন  হলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা মহিলাদলের সাবেক সভাপতি, উপজেলা ও জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য শেখ ফরিদা জাহান স্বপ্না। তিনি চশমা প্রতিক নিয়ে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। তিনি জানান, দীর্ঘ দিন যাবৎ বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত। বিএনপি দলীয় ভাবে নির্বাচন না করায় স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে চশমা প্রতিক নিয়ে প্রদিদ্বন্দিতা করছেন। এলাকায় চালাচ্ছেন গনসংযোগ প্রচার প্রচারণা। এছাড়া আ’লীগের দু’জন বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছেন। তারা হলেন আ’লীগ নেতা কায়কুবাদ। তিনি মোটরসাইকেল প্রতিক নিয়ে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। অপর জন মো.সফিউদ্দিন দেওয়ান। তিনি ঘোড়া প্রতিক নিয়ে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। তারাও ভোটের মাঠে চালিয়ে যাচ্ছেন নিজ নিজ অবস্থান থেকে প্রচারনা।

আগামী ৫ জানুয়ারী শ্রীপুরের ৮টি ইউনিয়নে অনুষ্ঠিত হবে নির্বাচন। এতে রাজাবাড়ি ইউনিয়নে ৯টি ওয়ার্ডের ১৭টি কেন্দ্রে ব্যালট পেপারের মাধ্যমে ভোট গ্রহন হবে। ভোট দিবেন ১৮হাজার ৩’শ ৫৯জন পুরুষ ও ১৮হাজার ৪’শ৪৯জন নারী ভোটার ।

স্থানীয় ভোটার দের সাথে কথা বলে জানা যায়,আ’লীগের দু’জন বিদ্রোহী প্রার্থীসহ নির্বাচনে চারজন চেয়ারম্যান প্রার্থী  প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। তবে মূল প্রতিদ্বন্ধিতা হবে দু’নারী প্রার্থীর মধ্যে। আ’লীগের একাধিক বিদ্রোহী প্রার্থী থাকায় ভোট বিভাজনের আশংকা রয়েছে। বিএনপি নেত্রী স্বতন্ত্র একক প্রার্থী হওয়ায় ভোটের পাল্লা তার দিকেই বেশী।

নাম প্রকাশ না করে স্থানীয়রা জানান, আ’লীগ মনোনীত প্রার্থী হাসিনা মমতাজ ২০০৪সাল থেকে আ’লীগের রাজনীতি করছেন।  এবারই প্রথম প্রকাশ্য  মাঠে নির্বাচনে এসেছেন। এলাকায় তার ব্যক্তিগত পরিচিতি খুবই কম। তার স্বামী প্রবীন কৃষকলীগ নেতা মো.আকবর আলী চৌধুরী এলাকায় সর্বজন পরিচিত। স্বামীর পরিচিত আর আ’লীগের সমর্থন তাকে এগিয়ে নিয়ে যাবে ভোটের মাঠে।

এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী শেখ ফরিদা জাহান স্বপ্না দীর্ঘদিন যাবৎ স্বকৃয় ভাবে বিএনপির রাজনীতি করে আসছেন। নিজে নেতৃত্ব দিয়ে তার স্বামী প্রয়াত কুতুব উদ্দিনের  দু’টি ইউপি  নির্বাচন পরিচালনা করেছেন। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নিয়ে  মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান র্নিবাচিত হয়েছেন। তার রয়েছে নির্বাচনের পূর্ব অভিজ্ঞতা। নিজের পরিচিতি,অভিজ্ঞতা আর দলীয় সমর্থন নিয়ে তিনি ও এগিয়ে যাবেন ভোটের মাঠে। সর্বশেষ দুই নেত্রীর মধ্যেই ভোটের মাঠে লড়াই হবে হাড্ডা হাড্ডি।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

রাজনীতি বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৭৮৪ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই