তারিখ : ০১ ডিসেম্বর ২০২২, বৃহস্পতিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

দৌলতখানে বাগানের সুপারি লুট করার অভিযোগ

দৌলতখানে যুবদল নেতাদের বাগানের সুপারি লুট করার অভিযোগ প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে
[ভালুকা ডট কম : ২৬ আগস্ট]
ভোলার দৌলতখানে যুবদল নেতার পিতার মালিকানাধীন বাগানের সুপারি লুট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এঘটনায় বাগান মালিক বাদী হয়ে ৩জনকে অভিযুক্ত করে দৌলতখান থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, দক্ষিণ জয়নগর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের পশ্চিম জয়নগর গ্রামের বাসিন্দা মৃত লাল মিয়া হওলাদারের ছেলে মোঃ রফিকুল ইসলাম ও তার ভাই তোফাজ্জল হোসেন পশ্চিম জয়নগর মৌজায় জেএল নং ২৪, নং ৭৪২/২২১ খতিয়ানের ১০৮৩/১০৮৪ নং দাগে ৩২ শতাংশ জমি ক্রয় করেন ১৯৬৩ ও ১৯৬৮ সালে। এরপর ২০০৮ সালে আ’লীগ ক্ষমতায় আসার পর থেকে প্রতিপক্ষ আলাউদ্দিন গংরা ক্ষমতার দাপটে বিভিন্ন সময় জমিটি নিজেদের দাবী করে বিরোধ সৃষ্টি করতো। এরই ধারাবাহিকতায় জমির মালিক মোঃ রফিকুল ইসলাম চিকিৎসার জন্য ঢাকায় গেলে গত ২৫ আগষ্ট সকাল সাড়ে ৯টায় আলাউদ্দিন গংরা তাদের বাগান থেকে সুপারি পাড়া শুরু করেন। পরে রফিকুল ইসলামের ভাই তোফাজ্জল হোসেন সুপারি পাড়ায় বাঁধা দিলে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং তাকে মারপিট করতে তেড়ে আসেন। এ সময় তোফাজ্জল হোসেন ডাক-চিৎকার দিলে লোকজন এগিয়ে আসলে তাকে বিভিন্ন হুমকি-ধামকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করেন। পরে আলাউদ্দিন গংরা বাগানের সুপারি লুট করে নিয়ে যায়।

এঘটনায় রফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে ৩জনকে অভিযুক্ত করে দৌলতখান থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযুক্তরা হলেন, বোরহানউদ্দিন উপজেলার বড়মানিকা ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মৃত আব্দুল আজিজ হাওলাদারের ছেলে আলাউদ্দিন (৪৫), দৌলতখান উপজেলার দক্ষিণ জয়নগর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মৃত আবুল বাশার হাওলাদারের ছেলে হারুন (৪০) ও একই ঠিকানার মৃত নাছির হাওলাদারের ছেলে মুন্না (২৪)।

অভিযোগে আরো জানা যায়, অভিযুক্তরা খুবই খারাপ প্রকৃতির লোক। জুলুমবাজ, লাঠিয়াল সর্দার, অন্যের সম্পত্তি জোড়পূর্বক দখল করা আলউদ্দিন গংদের নেশা ও পেশা। রফিকুল ইসলামের বাগানে বর্তমানে ৬শতাধিক সুপারি ও নারিকেল গাছ রয়েছে। উল্লেখ্য রফিকুল ইসলাম বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল কেন্দ্রিয় কমিটির সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও বর্তমান ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবদলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য রকিবুল হাসান হাওলাদারের পিতা বলে জানা গেছে।

জানতে চাইলে দৌলতখান থানার অফিসার ইনচার্জ বলেন, অভিযোগ দিয়ে থাকলে পুলিশ ঘটনাস্থলে যাবে এবং তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অপরাধ জগত বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৫৩৫ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই