তারিখ : ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

তজুমদ্দিনে উদ্বোধনের অপেক্ষায় একাডেমী ভবন

তজুমদ্দিনে উদ্বোধনের অপেক্ষায় চাঁদপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের দৃষ্টিনন্দন একাডেমী ভবন ও পাঠাগার
[ভালুকা ডট কম : ১৪ মে]
ভোলার তজুমদ্দিনে চাঁদপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবন ও দৃষ্টিনন্দন পাঠাগারের নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। নবনির্মিত ভবন ও পাঠাগারটি এখন শুধু উদ্বোধনের অপেক্ষায় রয়েছে।

সূত্র জানা গেছে, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের বাস্তবায়নে সাড়ে তিন কোটি টাকা ব্যয়ে বিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনটি নির্মাণ করেন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ইলিয়ান এন্টারপ্রাইজ এন্ড মোল্লা ট্রেডার্স। শিক্ষা প্রকৌশল দপ্তর সারাদেশে জেলা পর্যায়ে ১০ তলা ও উপজেলা পর্যায়ে পাঁচ তলা বিশিষ্ট অত্যাধুনিক একাডেমিক ভবন নির্মাণের প্রকল্প গ্রহণ করেন। সে অনুযায়ী সারাদেশের মধ্যে প্রথম অত্যাধুনিক একাডেমিক ভবন হিসেবে তজুমদ্দিনে চাঁদপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ভবনের কাজ সম্পন্ন হয়। ভবনটিতে লিফ্টের পাশাপাশি  শারীরিক প্রতিবন্ধীদের জন্য রয়েছে বিশেষ ধরনের  সিঁড়ির ব্যবস্থা। এছাড়াও ভবনটিতে বসানো হয়েছে আধুনিক বিশেষ ক্ষমতা সম্পন্ন সোলার প্যানেল। যেটি ব্যবহারের ফলে ৩০% বিদ্যুৎ খরচ কম হবে। গত ২৫ এপ্রিল শিক্ষা মন্ত্রণালয় একটি প্রতিনিধিদল একাডেমিক ভবনের কাজ পরিদর্শন শেষে চলতি এসএসসি পরীক্ষার আগেই  শিক্ষা প্রকৌশল দপ্তর ভবনটি স্কুল কর্তৃপক্ষের নিকট হস্তান্তর করেন।

অন্যদিকে বিদ্যালয়ের নিজস্ব অর্থায়নে ও প্রধান শিক্ষকের (ভারপ্রাপ্ত) একক প্রচেষ্টায় সাত শতাধিক বই নিয়ে গড়ে তোলা হয়েছে “এম পি শাওন পাঠাগার” । পাঠাগারটিতে রয়েছে দেশের স্বনামধন্য বিভিন্ন লেখকদের বই। বইগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে ভোলা জেলাসহ ৬৪ জেলার মুক্তিযুদ্ধের  ইতিহাস, বঙ্গবন্ধ, শেখ রাসেল, প্রধানমন্ত্রী ও স্বাধীনতা  যুদ্ধের দলিল বিষয়ের  দুশতাধিক বই রয়েছে পাঠাগারটিতে। স্কুলের অত্যাধুনিক ভবন ও দৃষ্টিনন্দন পাঠাগারটি আগামী ১৯ মে ভোলা-৩ আসনের সংসদ  সদস্য আলহাজ্ব নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন উদ্বোধন করার কথা রয়েছে। উদ্বোধনের পরই বিদ্যালয়ের বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের জন্য সরকারি ছুটি ছাড়া বিকাল ৫টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত খোলা থাকবে পাঠাগারটি।

জানতে চাইলে চাঁদপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) মোফাজ্জল হোসেন বলেন, সারাদেশে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে আধুনিক সুযোগ সুবিধার সমন্বয়ে নির্মাণ করা ভবনটিতে শিক্ষার্থীরা শিক্ষার যথাযথ পরিবেশ পাবে। তজুমদ্দিনে প্রথম লিফ্টযুক্ত ভবন নির্মাণ করা হলো। তাছাড়া প্রতিবন্ধীদের জন্য লিফ্ট ছাড়াও রয়েছে বিশেষ সিঁড়ির ব্যবস্থা।

অপরদিকে শিক্ষার্থীদের বই পড়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে বিদ্যালয়ের নিজস্ব অর্থায়নে সাত শতাধিক বই নিয়ে স্থানীয় সংসদ নুরুন্নবী চৌধুরী শাওনের নামে গড়ে তোলা হয়েছে “এমপি শাওন পাঠাগার”। স্কুলের একাডেমিক ভবন ও পাঠাগারটি আগামী ১৯শে মে ভোলা-৩ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন উদ্বোধন করবেন। তিনি আরো বলেন এ ধরনের আধুনিক পাঠাগার শুধু  তজুমদ্দিনে নয় ভোলা জেলার কোন বিদ্যালয়ে রয়েছে কিনা সন্দেহ রয়েছে।



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

শিক্ষাঙ্গন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৮৯০৪ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই