তারিখ : ০১ মার্চ ২০২১, সোমবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

শার্শার বাগআাঁচড়ায় এনজিও কর্মি পরিচয়ে শিশু চুরি

শার্শার বাগআাঁচড়ায় এনজিও কর্মি পরিচয়ে শিশু চুরি
[ভালুকা ডট কম : ২০ জানুয়ারী]
যশোরের শার্শার বাগআঁচড়ায় এনজিও কর্মি পরিচয় দিয়ে সরকারি অনুদানের প্রলোভন দেখিয়ে এক নারীর ২৪ দিনের পুত্র সন্তান চুরির ঘটনা ঘটেছে।বুধবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে ঘটনাটি ঘটে শার্শা উপজেলার বাগআঁচড়া বাজারের রিফাত হোটেলে।

ভিডিও ফুটেজে এক নারীকে ওই শিশুটি নিয়ে যেতে দেখা গেলেও বোরকাপরা ও মুখ ঢাকা থাকায় শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। বিষয়টি শার্শা থানা পুলিশকে জানালেও এখন পর্যন্ত ওই চোরকে শনাক্ত ও বাচ্চা উদ্ধার করতে পারেনি।চুরি যাওয়া শিশু তাসিনের মা জান্নাতুল বেগমের বাড়ি উপজেলার কায়বা ইউনিয়নের রুদ্রপুর গ্রামে। তিনি ঐ গ্রামের আশরাফুলের স্ত্রী।

শিশুটির মা জান্নাতুল জানান, ১৫/২০ দিন আগে নাম ঠিকানা না জানা অজ্ঞাত এক মহিলা এনজিও কর্মি পরিচয় দিয়ে তাদের বাসায় গিয়ে গর্ভবতী কার্ড করে দিবে বলে প্রলোভন দেখায়। সেই মোতাবেক অজ্ঞাত সেই মহিলা আশরাফুলের বাসায় গিয়ে বুধবার সকালে ৩০ হাজার টাকা দিবে বলে তাসিনের মাতা ও দাদাকে বাগআঁচড়া বাজারে নিয়ে আসে।

এক পর্যায়ে উভয়ে নাস্তা করার জন্য বাগআঁচড়া বাজারের রিফাত হোটেলে প্রবেশ করলে অজ্ঞাত মহিলা তাসিনের মাতা ও দাদাকে নাস্তার টেবিলে বসিয়ে নাস্তা করায় এবং শিশু তাসিনকে নিজের কাছে নিয়ে হোটেল থেকে কৌশলে বেরিয়ে পালিয়ে যায়। বেশ কিছুক্ষণ পার হলেও হোটেলের চারপাশ এবং মেইন সড়কগুলো খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্তানসহ ওই নারীকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

বাগআঁচড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের অফিসার ইনচার্জ উত্তম কুমার জানান, ভিডিও ফুটেজে অজ্ঞাত ওই নারীকে দেখা গেছে। শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। পুলিশ বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করছে। আশা করি দ্রুত সময়ের মধ্যেই বাচ্চা উদ্ধার করতে পারবো। #



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অপরাধ জগত বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩০৭ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই