তারিখ : ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, সোমবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

তজুমদ্দিন রিটার্নিং কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ

তজুমদ্দিনে ইউপি নির্বাচনে
পোলিং অফিসার নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ রিটার্নিং কর্মকর্তার বিরুদ্ধে     
[ভালুকা ডট কম : ৩০ ডিসেম্বর]
ভোলার তজুমদ্দিনে চতুর্থধাপে সোনাপুর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে পোলিং অফিসার নিয়োগ অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে রিটার্নিং কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। এ নিয়ে নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করতে না পারা শিক্ষকদের মাঝে চরম চাপা ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

সুত্রে জানা গেছে, গত ২৬ ডিসেম্বর উপজেলার ২নং সোনাপুর ইউনিয়নে সাধারণ সদস্য ও সংরক্ষিত নারী সদস্যদের মধ্যে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে ডিপিএডের ২০২১/২২ শিক্ষাবর্ষে প্রশিক্ষণরত শিক্ষকদের পোলিং অফিসার হিসেবে অনিয়মের মাধ্যমে নিয়োগ দেয় রিটার্নিং কর্মকর্তা আমীর খসরু গাজী। অথচয় আইন রয়েছে ডিপিএড প্রশিক্ষণরত শিক্ষকরা সরকারী এধরনের কর্মকান্ডে অংশ গ্রহণ করতে হলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের পূর্বানুমতি লাগবে। কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সোনাপুর ইউনিয়নে নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা আমীর খসরু গাজী প্রশিক্ষণে থাকা শিক্ষকদের নির্বাচনে পুলিং অফিসার হিসেবে নিয়োগ দেন এবং তাদের নামে দায়িত্ব পালনের জন্য চিঠি প্রেরণ করেন। যে দায়িত্ব সম্পর্কে ডিপিএড কর্তৃপক্ষ কিছুই জানেন না। পরে প্রশিক্ষণরত শিক্ষকরা রিটার্নিং কর্মকর্তার চিঠিসহ ছুটির আবেদন করলে বিপিএড কর্তৃপক্ষ তাদেরকে ছুটি দেন বলে জানা যায়। উপজেলা শিক্ষা অফিস সুত্রে জানা যায়, সোনাপুর ইউনিয়নের নির্বাচনের জন্য উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার উপজেলা শিক্ষা অফিসের কাছে শিক্ষকদের হালনাগাদ তালিকা না চেয়ে নিজেদের ইচ্ছামত নির্বাচনের দায়িত্ব বণ্টন করায় এধরনের জটিলতা তৈরী হয়েছে। উপজেলায় কর্মরত শিক্ষকরা নির্বাচনে দায়িত্ব পালনের জন্য অগ্রহ প্রকাশ করলেও অজ্ঞাত কারণে তাদের নির্বাচনে দায়িত্ব পালনের সুযোগ দেয়নি রিটার্নিং কর্মকর্তা আমির খসরু গাজী। ডিপিএড প্রশিক্ষণে থাকা শিক্ষকদের মধ্যে নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করেন, চাঁদপুর মজিদিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক রাজিব কুমার দে, চাঁদপুর মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মুনসুর হেল্লাল ও কেয়ামূল্যাহ মীর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. ইউসুফ।

জানতে চাইলে সোনাপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডে চরজহিরউদ্দিন রেডক্রিসেন্ট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নির্বাচনের দায়িত্ব পালন করা বিপিএডের শিক্ষক রাজিব কুমার দে বলেন, নির্বাচন অফিস থেকে আমাকে চিঠি করছে সেই অনুযায়ী আমি সোনাপুর ৩নং ওয়ার্ডের কেন্দ্রে দায়িত্ব পালন করছি বলে ক্লাশে আছেন বলে তিনি ফিান কেটে দেন।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. নুরুল ইসলাম বলেন, উপজেলা নির্বাচন অফিস সোনাপুর ইউনিয়নের নির্বাচনের জন্য আমাদের নিকট হালনাগাদ শিক্ষকদের তালিকা চায়নি আমরাও তালিকা দেইনি। যে কারণে তারা তাদের ইচ্ছামত দায়িত্ব বণ্টন করায় এধরনের সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। এ বিষয়ে আমরা নয় নির্বাচন অফিসারই ভালো বলতে পারবে। উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার আমীর খসরু গাজীর ব্যবহৃত নম্বরের একাধিকবার ফোন দিলেও রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেয়া যায়নি।

ভোলা পিটিআই’র সুপারিনটেনডেন্ট শিরিন সবনম বলেন, আমার এখানে প্রশিক্ষণরত কোন শিক্ষক সেখানে নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করুক তা আমি চাইনি বরং আমি চাইছি সেখানে কর্মরত শিক্ষকরাই নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করুক। শিক্ষকদেরকে ছুটি দিতে না চাওয়ায় তারা জানান যে, তাদের নাম পরিবর্তন করা যাবেনা। পরে রিটার্নিং কর্মকর্তার স্বাক্ষরিত চিঠিসহ ছুটির আবেদন করায় আমি তাদেরকে ছুটি দিয়েছি।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

নির্বাচন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫২২২ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই