তারিখ : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গাছ কেটা,বিভিন্ন মহলের ক্ষোভ

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গাছ কেটা,বিভিন্ন মহলের ক্ষোভ
[ভালুকা ডট কম : ০৬ মে]
'রাজধানীর ফুসফুস' হিসেবে পরিচিত সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গাছ নিধন করে রেস্তোরাঁ এবং হাঁটার পথ নির্মাণের সরকারি উদ্যোগের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছে নাগরিক সমাজ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন সবুজের এ উদ্যানটির সৌন্দর্য বৃদ্ধির নামে গণপূর্ত বিভাগের নির্দেশে কাটা হচ্ছে এখানকার গাছ। ইতিমধ্যেই বেশকিছু বড় ও পুরোনো গাছ কাটা হয়ে গেছে। গণপূর্ত বিভাগের দাবি, নিয়ম মেনেই গাছগুলো কাটা হচ্ছে।তবে আদালতের নির্দ্দেশনার উপেক্ষা করে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের বৃক্ষ  নিধন এবং রেস্তোরাঁ নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখতে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব, গণপুর্ত বিভাগের চিফ ইঞ্জিনিয়ার এবং চিফ আর্কিটেক্ট অব বাংলাদেশ’কে ৪৮ ঘণ্টার সময় দিয়ে আজ একটি আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন হিউম্যান রাইটস এন্ড পিস ফর বাংলাদেশ- এর সভাপতি,  সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ।

তিনি উল্লেখ করেছেন, ২০০৯ সালে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের নিয়ে এক রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে হাইকোর্ট এখানকার ঐতিহাসিক স্থানসমূহ সংরক্ষণ এবং এটিকে উদ্যান হিসেবে সংরক্ষণ করার নির্দেশ দিয়েছেন। এখানে বাণিজ্যিক স্বার্থে দোকান স্থাপন বা গাছ কাঁটা আদালতের সেই নির্দেশের পরিপন্থী। এজন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আদালত অবমাননাজনিত আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

এছাড়া, জাতীয় মুক্তি কাউন্সিল আজ এক বিবৃতি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গাছ কেটে রেস্টুরেন্ট নির্মাণের সরকারি সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে  আন্দোলন গড়ে তোলার জন্য নগরবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গাছ নিধনের প্রতিবাদে গতকাল (বুধবার) বিকেলে উদ্যানের পাশে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি সংলগ্ন গেটে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে ‘নোঙর বাংলাদেশ’, ‘স্বাধীনতা উদ্যান সাংস্কৃতিক জোট’, ‘গ্রিন প্ল্যানেট ’ নামে তিনটি সংগঠন।

মানববন্ধনে বক্তারা উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে খাবারের দোকান বানানোর নামে প্রকৃতি হত্যার ব্যবস্থা করা হয়েছে। যেখানে পৃথিবীর অন্যান্য দেশে প্রকৃতি বাঁচিয়ে রেখে অবকাঠামো নির্মাণ করা হয়, সেখানে আমাদের দেশে গাছ কেটে হাঁটার পথ, খাবারের দোকান বানানো হচ্ছে। অবিলম্বে এই প্রকৃতি হত্যার আয়োজন বাতিলের দাবি জানান তারা। মানববন্ধনে 'বনফুল' নামের একটি সাংস্কৃতিক সংগঠন পরিবেশ রক্ষায় সচেতনতামূলক গান পরিবেশন করে।

এর আগে মঙ্গলবার (৪ মে) উদ্যানটির বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে এক অনলাইন আলোচনা সভায় ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে খাবারের দোকান নির্মাণকাজ ও নির্বিচারে গাছ নিধন বন্ধ করাসহ ছয় দফা সুপারিশ জানিয়েছে 'পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন' (পবা)।

পবা’র আলোচনা সভায় পরিবেশবিশারদগণ বলছেন, সবুজের সমারোহ গাছ-গাছালির ছায়া ঢাকা ও পাখি ডাকা সুপরিসর এ নগর উদ্যানকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে। দেশের নতুন প্রজন্ম, পরবর্তী প্রজন্ম বংশপরম্পরায় ইতিহাসের সাক্ষী সোহরাওয়ার্দী উদ্যান দেখবে এবং এর ঐতিহাসিক গুরুত্বকে স্মরণ করবে। মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিজড়িত স্থানগুলো চিহ্নিত করেই ঢাকার এই খোলা ময়দানকে উন্মুক্ত রাখা সম্ভব। সবুজ প্রায় নিঃশেষিত উদ্যানটি আর যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, সেদিকে লক্ষ রাখতে হবে।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

পরিবেশ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩১৯ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই